টাঙ্গাইলে ধানে আগুন লাগানো সেই কৃষকের ধান কেটে দিল কলেজ শিক্ষার্থীরা

0
24

মো: আ: হামিদ টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি:- টাঙ্গাইল কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নের আব্দুল মালেক সিকদারের ধান কেটে দিয়েছে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে জেলার সরকারি সা’দত কলেজ, মাওলানা মোহাম্মদ আলী কলেজ, লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজসহ বেশ কয়েকটি স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা আব্দুল মালেকের ক্ষেতে ধান কেটে দেন। শ্রমিকের মূল্য বৃদ্ধি ও ধানের দাম কম হওয়ায় আব্দুল মালেক প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে তার ধান ক্ষেতে আগুন দেয়। এ ঘটনাটি দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করে। লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী মো. রাফি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানতে পারি শ্রমিকের মূল্য প্রতি মণ ধানের মূল্যের চেয়ে বেশি হওয়ায় ধান ক্ষেতে আগুন ধরিয়ে প্রতিবাদ করেছেন এক কৃষক। মানবিক কারণে আমরা মালেক কাকার ক্ষেতে ধান কেটে দিয়েছি। মাওলানা মোহাম্মদ আলী কলেজের শিক্ষার্থী মো. আল আমিন বলেন, ধানের দামের তুলনায় ধান কাটা শ্রমিকের মূল্য অনেক বেশি। প্রায় দেড় মণ ধানের দাম দিয়ে একজন ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি হয়। সে দিক বিবেচনা করে আমরা ধান কেটে দিয়েছি। একই কলেজের শিক্ষার্থী মো. সুজন বলেন, ধান কাটা শ্রমিকের মূল্য বেশি হওয়ার পরও শ্রমিক সংকট রয়েছে। ফলে ধান কাটা নিয়ে বিপাকে পড়েছে অনেক কৃষক। সে জন্য আমরা বিভিন্ন কলেজ থেকে এসেছি মালেক মিয়াকে সহযোগিতা করার জন্য। আব্দুল মালেক বলেন, আসলে কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। শ্রমিক না পাওয়ায় ও ধানের দাম কম হওয়ায় প্রতিবাদস্বরূপ তিনি ক্ষেতে আগুন দেন। শিক্ষার্থীরা আমার ক্ষেতের ধান কেটে দেয়ায় আমি অনেক খুশি। উল্লেখ্য, গত রোববার (১২ মে) দুপুরে কালিহাতী উপজেলার পাইকড়া ইউনিয়নের বানকিনা এলাকার আব্দুল মালেক সিকদার নামের এক কৃষক ধানের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে নিজের পাকা ধানে আগুন দিয়ে অভিনব প্রতিবাদ জানান। মালেক সিকদারের এই প্রতিবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এলাকার অধিকাংশ কৃষক। পাকা ধানে আগুন দেখে অনেকেই ছুটে আসেন।