স্বরুপকাঠীতে ১টা বাজলেই বন্ধ কমিউনিটি ক্লিনিক, বঞ্চিত জনগণ

0
123

সুমন খান, স্টাফ রিপোর্টার : ১টা বাজলেই বন্ধ হয়ে যায়, নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠির) সুটিয়াকাঠি কমিউনিটি ক্লিনিক। স্থাণীয় জনগনের দীর্ঘ দিনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল ১টায় গিয়ে সরেজমিনে দেখা যায় তালা ঝুলছে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের এই স্বাস্থ্য সেবা সেন্টারে, ভেতরে জ্বলছে লাইট। এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে মোবাইল যোগে অালাপের পরই হাজির হনন প্রতিষ্ঠানের (সিএসসিপি) শারমিন অাক্তার।

এলাকাবাসীর অভিযোগ ছিল এই কমিউনিটি ক্লিনিকটি সরকারি নিয়মে নয় বরং নিজস্ব সেচ্ছাচারীতা অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে। শারমিন আক্তার প্রতিদিন দুপুর ১টায় নিজ স্বামীর সাথে মোটরবাইকে চেপে ক্লিনিক বন্ধ করে চলে যান, তিনি ব্যাতীত অন্য তিন স্বাস্থ্য সহকারি সপ্তাহে দুই দিন করে ডিউটির বিধান থাকলেও মিটিং জনিত বাধ্যকতা ছাড়া আসেন না কেউই, সেবা নিতে আসা লোকজন ক্লিনিক বন্ধ পেয়ে ধীরেধীরে এখানে অাসা বন্ধ করে দিচ্ছেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

এ ব্যাপারে শারমিন অাক্তার জানান, তিনি প্রতিদিন ১:৪০ থেকে ২টা পর্যন্ত ডিউটি করেন, ডিউটি টাইম ৩টা। রুমানা অাক্তারের আজ ডিউটি থাকলেও তিনি আসেন নি। একান্ত জরুরী না হলে রুমানাসহ বাকি দুই স্বাস্থ্য সহকারি কেউই আসেন না ক্লিনিকে অথচ তাদের সপ্তাহে প্রত্যেককে দুই দিন করে তিন জনার মোট ছয় দিন ক্লিনিকে থাকার বিধান রয়েছে। এ ব্যাপারে রুমানার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথমে ক্লিনিকে উপস্থিত ছিল বলে দাবী করলেও পরবর্তীতে তিনি মিথ্যা বলার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। এঘটনায় অত্র ক্লিনিকের সিএসসিপি তার সকল অনিয়ম স্বীকার করে ভবিষ্যতে নিজেকে শুধরে নেয়ার কথা বলেন।

এলাকাবাসির দাবী, গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মানণীয় প্রধানমন্ত্রীর এ মহতি উদ্যোগকে প্রশ্নবিদ্ধ করায় এধরনের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক এবং জনসাধারণ যেন স্বাস্থ্যসেবা থেকে এভাবে বঞ্চিত না হয় সে দিকে যথাযথ কর্তৃপক্ষের সজাগ দৃষ্টি।